Wednesday, March 22, 2023
HomeHealthসেক্স করলে কি কি উপকার আর হস্তমৈথুন করলে কি কি ক্ষতি

সেক্স করলে কি কি উপকার আর হস্তমৈথুন করলে কি কি ক্ষতি

Disclaimer: এই লেখাতে কিছু সেক্সুয়াল বিষয় থাকতে পারে। আপনি যদি ১৮ বছরের বয়সের নিচে হয়ে থাকেন তাহলে এই পোস্টটি এড়িয়ে চলুন।
সেক্স মানব জীবনের গুরুত্বপূর্ণ একটা অংশ অন্যান্য প্রাণী শুধু বংশবৃদ্ধি করার জন্য সেক্স করলেও মানুষের ক্ষেত্রে এর উদ্দেশ্য আরও বিস্তৃত। মানুষ সেক্স করে প্রজননের জন্য, আনন্দের জন্য, যৌন তাড়না মিটানোর জন্য এবং সঙ্গীর সাথে সম্পর্ক অটুট রাখার জন্য।
কিন্তু এর বাইরে আমাদের জীবনে সেক্সুয়াল ইন্টারকোর্সের বেশকিছু উপকারিতা আছে। কী সেই উপকারিতা?

১. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

আমাদের চারপাশে কতশত রোগজীবাণু এবং ভাইরাস ঘুরে বেড়ায়। এসবের মধ্যে আপনি আমি সুস্থ থাকি কীভাবে?
এসব প্রতিরোধের জন্য আমাদের দেহের নিজস্ব প্রতিরক্ষা সিস্টেম আছে। এন্টিবডি এন্টিজেন এই সিস্টেমের অন্তর্ভুক্ত। Immunoglobulin A ( IgA) হচ্ছে এরকম একটি এন্টিবডি। একটি গবেষণায় দেখা যায়, যারা সপ্তাহে দুই একবার হলেও সেক্স করে তাদের দেহে অন্যদের তুলনায় IgA বেশি থাকে!
IgA বেশি থাকা মানে আপনার দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি!

২. কাম বা যৌনশক্তি বৃদ্ধি করে।

নিয়মিত মিলনে আপনার কামশক্তি ( Libido) বৃদ্ধি পায়। নারীদের ক্ষেত্রে, মিলনের ফলে ভ্যাজাইনাতে লুব্রিকেশন, রক্ত প্রবাহ এবং নমনীয়তা বৃদ্ধি পায়। যা একজন নারীর যৌন জীবন সুন্দর করে তুলে।

৩. হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়।

হেলদি সেক্স লাইফ আপনার হার্ট ভালো রাখতে সাহায্য করে। আপনি যখন সঙ্গীর সাথে মিলিত হোন তখন আপনার হার্ট রেট বৃদ্ধি পায়। এছাড়া সেক্স আপনার গুরুত্বপূর্ণ দুটি হরমোন এস্ট্রোজেন এবং টেস্টোস্টেরন এর ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। এই দুটোর যেকোনো একটির ভারসাম্য নষ্ট হলে হৃদরোগ সহ অন্যান্য রোগের ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।
একটি স্টাডিতে দেখা যায়, যারা সপ্তাহে কমপক্ষে দুইবার মিলিত হোন তাদের অন্যদের ( যারা হোন না বা এর চেয়ে কম মিলিত হোন) তুলনায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার ঝুঁকি অর্ধেক!

৪. ব্লাড প্রেসার লো রাখে।

অনেকগুলো গবেষণায়ই দেখা যায়, পেনিট্রেটিভ সেক্স রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। এটা বিশেষ করে হার্টের সিস্টোলিক চাপ কমিয়ে দেয়। হস্তমৈথুনে এই উপকারিতা পাওয়া যাবে না।

৫. ব্যাথা কমানোর ঔষধ।

আপনার পায়ে বা কোমড়ে খুব ব্যাথা? তাহলে এসপিরিন খাওয়ার আগে একবার সঙ্গীর সাথে মিলিত হতে পারেন।
গবেষকদের মতে, নারীর ভ্যাজাইনাল স্টিমুলেশন দীর্ঘমেয়াদি কোমড় এবং পায়ের ব্যাথা দূর করতে পারে। কিছু ক্ষেত্রে পিরিয়ডের ব্যাথা, আথ্রাইটিক ব্যাথাও দূর করতে পারে।
আরেকটি স্টাডিতে দেখা যায়, মাইগ্রেন বা বিভিন্ন কারণ জনিত মাথাব্যথা দূর করতেও ইন্টারকোর্সের ভূমিকা আছে।

৬. প্রোস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।

এটা অবশ্য অনেকে জানেন। আগেও বেশ কয়েকবার হাউকাউ হয়েছিল এটা নিয়ে।
গবেষণায় দেখা যায়, যারা মাসে কমপক্ষে ২১ বার অর্গাজম ঘটায় তাদের অন্যদের প্রোস্টেট ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম। তবে এই গবেষণা নিয়ে গবেষকরা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেয়নি।

৭. মুত্রাশয়ের উপর নিয়ন্ত্রণ বৃদ্ধি পায়।

এটা শুধু নারীদের ক্ষেত্রে। পেনিট্রেটিভ সেক্সের মাধ্যমে আসলে পেলভিক ফ্লোরের পেশির ব্যায়াম হয় বলে পেশি শক্তিশালী হয়ে উঠে। এটাই মুত্রাশয়ের উপর নিয়ন্ত্রণ বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। প্রায় ৩০% মহিলার জীবনের কোনো একটা পর্যায়ে মুত্রাশয়ের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলার সমস্যা হয়।

৮. মানসিক চাপ ও উদ্বেগ কমায়।

সঙ্গীর ঘনিষ্ঠ হতে কার না ভালো লাগে? বলা যায় পৃথিবীর অন্যতম সুখকর অনুভূতি এটা।
আমরা যখন কোনো ভালো লাগার কাজ করি ব্রেইনে তখন অক্সিটোসিন রিলিজ হয়। এই অক্সিটোসিন ব্রেইনকে মানসিক চাপ ও উদ্বেগ হতে মুক্ত করতে পারে। মজার ব্যাপার হচ্ছে, সেক্সুয়াল ইন্টারকোর্স নাকি আত্মসম্মানও বৃদ্ধি করে থাকে!

৯. ভালো ঘুম হয়।

এটা মোটামুটি সবারই জানা। মাত্রই জেনে এলাম সঙ্গীর ঘনিষ্ঠতা মানসিক চাপ ও উদ্বেগ কমায়। তো মানসিক চাপ ও উদ্বেগ কম থাকলে ভালো ঘুম হবে এটাই তো স্বাভাবিক, নাকি?
মাস্টারবেশন এবং সেক্স এর উপকারিতা প্রায় একই। দুয়েকটা অপশন ছাড়া। আলোচনা করার সময় আমি উল্লেখ করেছি অবশ্য। মাস্টারবেশনের ক্ষতিকর দিক নেই। এর ক্ষতি নিয়ে যেসব কথা প্রচলিত আছে সেগুলো সব গুজব।
Related News
- Advertisment -

Popular News

error: Content is protected !!