Thursday, April 18, 2024
HomeIslamicরাজুয়ার ঘোনা সমাজ উন্নয়ন কমিটি গঠন; প্রধান উপদেষ্টা ইসমাইল নজিব

রাজুয়ার ঘোনা সমাজ উন্নয়ন কমিটি গঠন; প্রধান উপদেষ্টা ইসমাইল নজিব

মুহাম্মদ হেদায়ত উল্লাহঃ

পাহাড়বেষ্টিত দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর হোয়ানক ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড রাজুয়ার ঘোনা ‘সমাজ উন্নয়ন কমিটি’ (সউক) গঠন করা হয়েছে।

২৫ জুলাই রাজুয়ার ঘোনা ‘মুইনুল ইসলাম মাদ্রাসা’র মসজিদে বৃহত্তর রাজুয়ার ঘোনার আলেম সমাজ, যুব সমাজ ও দ্বীন দরদি তৌহিদি জনতার সমন্বয়ে মদ-জুয়া, ইয়াবা, অশ্লীল গান-বাজনা, চুরি-ডাকাতিসহ যাবতীয় রাষ্ট্র বিরোধী, সমাজ বিরোধী ও ইসলাম বিরোধী কর্মকাণ্ড থেকে মুক্ত রাখার লক্ষ্যে তিনজনের যৌথ আহবানে (১.জিরি মাদ্রাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস জনাব মাওলানা ইসমাইল নজিব সাহেবে, ২. মাওলানা জুনাইদ জারুল্লাহ ও ৩. মো. ছরওয়ার আলম) এক পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত পরামর্শ সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পুনরায় গত ২৮ জুলাই দ্বিতীয় বার পরামর্শ সভার আয়োজন করে উপস্থিত সবার সর্ব সম্মতিক্রমে রাজুয়ারঘোনা ‘সমাজ উন্নয়ন কমিটি (সউক)’ গঠন করা হয়।

উক্ত সভায় বক্তব্য রাখেন- মাওলানা ইসমাইল নজীব,
মাওলানা আব্দুর রহমান, মাওলানা জুনাইদ জারুল্লাহ, মোঃ ওসমান গণী
মোঃ সরওয়ার আলম
নাজির হোসাইন (দক্ষিণপাড়া)
মাওলাসা হেদায়ত উল্লাহ সহ আরো অনেকে।

দীর্ঘ আলোচনার পর উপস্থিত সদস্যদের সর্ব সম্মতিক্রমে (ক) উপদেষ্টা কমিটি (খ) পরিচালনা কমিটি ও (গ) তথ্য ও পর্যবেক্ষণ কমিটি নামে ৩টি কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

উপদেষ্টা কমিটিঃ
মাওলানা ইসমাইল নজীব,
মাওলানা আব্দুর রহমান, মাওলানা মমতাজুল ইসলাম,
মাওলানা মোক্তার আহমদ,
মাওলানা তৈয়ব আরমান,
মাওলানা আমিনুল ইসলাম (মুহতামিম), আবু বক্কর ছিদ্দিক (ইউপি সদস্য),
মোঃ ইসমাইল হোসাইন, মোঃ ওসমান গণী।

পরিচালনা কমিটিঃ
মোহাম্মদ আবুল হোসাইন (সভাপতি), মোহাম্মদ বজল আহমদ (সহ-সভাপতি),
মোহাম্মদ সরওয়ার আলম (সাধারণ সম্পাদক), মাওলানা আবুল কাশেম (সহ-সাধারণ সম্পাদক), মাওলানা জুনাইদ জারুল্লাহ (সাংগঠনিক সম্পাদক), মোঃ নুরুল আলম সওদাগর (অর্থ সম্পাদক), মাওলানা হেদায়ত উল্লাহ (মিডিয়া সম্পাদক)।

সিনিয়র সদস্যবৃন্দঃ
মোহাম্মদ সোলতান, মোহাম্মদ রওশান আলী, মোহাম্মদ নেছার উল্লাহ, মোঃ আবদুল গফুর (সও.), মোঃ আবুল হোসাইন, মাওলানা সোলতান, মাওলানা রশিদ আহমদ, মাওলানা মোক্তার, মাওলানা ইসমাইল নজীব, মোঃ রফিক বিন কাশেম আলি, মোঃ ফজল আহমদ, মাওলানা আব্দুল মুনয়েম, মাওলানা আব্দুল খালেক, মাওলানা তৈয়ব আরমান, মুহাম্মদ জহির, মোঃ আমানুল্লাহ, মোঃ সোলতান, মোঃ বদন আলি, মোঃ আব্দুর রহমান, মোঃ আবুল হোসাইন, মোঃ বজল আহমদ, মাস্টার রমজান আলি।

তথ্য ও পর্যবেক্ষণ কমিটিঃ
মধ্যম রাজুয়ারঘোনা-
মোঃ আরিফুল্লাহ (তাবলিগের সাথী), মাওলানা ইয়াছিন বিন, মমতাজ মোহাম্মদ ফোরকান, মাহমুদুল্লাহ ওছমান (তাবলিগের সাথী), ইউনুছ (তাবলিগের সাথী), মোঃ আক্তার হোসাইন, মোহাম্মদ রাশেল, মোঃ নাজেম (তাবলিগের সাথী), মোঃ নুর কাশেম, মোঃ বাবুল হোসাইন।

উত্তর রাজুয়ারঘোনা-
হাফেজ ইউসুফ (তাবলিগের সাথী), মোঃ হাসান (তাবলিগের সাথী), আনোয়ার হোসাইন (তাবলিগের সাথী), আনোয়ার পাশা (তাবলিগের সাথী), নুরুল আমিন (তাবলিগের সাথী), মোঃ বেলাল উদ্দিন, মোঃ নজরুল ইসলাম, মোঃ শহিদুল্লাহ, মুহাম্মদ জসিম, মাওলানা খাইরুল আমিন, কলিমুল্লাহ বিন আমির চাঁন, মোঃ আমানুল্লাহ (আমানু)।

এতে উপস্থিত ছিলেন বৃহত্তর রাজুয়ারঘোনার আলেম সমাজ, যুব সমাজ, দ্বীন দরদি তৌহিদি জনতা ও সমাজপতিসহ দল-মত নির্বিশেষে বিভিন্ন শ্রেণির প্রায় শতাধিক ব্যক্তিবর্গ।

উক্ত সংগঠনের উদ্দেশ্য অত্র এলাকাকে মদ-জুয়া, ইয়াবা, অশ্লীল গান-বাজনা, চুরি-ডাকাতিসহ যাবতীয় রাষ্ট্র বিরোধী, সমাজ বিরোধী ও ইসলাম বিরোধী কর্মকাণ্ড থেকে মুক্ত রাখা।

উল্লিখিত যেকোনো কর্মসূচি উপদেষ্টা কমিটির পরামর্শক্রমে পরিচালনা কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক বাস্তবায়ন করা হবে। ব্যক্তিগতভাবে কারো একক সিদ্ধান্ত গ্রহণ যোগ্য হবে না।

কমিটির কোনো ব্যক্তি/দায়িত্বশীল আইন নিজ হাতে তুলে নিবে না। প্রয়োজনে প্রশাসনের অনুমতি ও সহযোগিতায় জটিল সমস্যার সমাধান করা হবে।

যেকোনো সমাধান উপলক্ষ্যে প্রাথমিকভাবে দাওয়াতি কাফেলা ও ‘তথ্য ও পর্যবেক্ষণ কমিটি’র মাধ্যমে দাওয়াতি পদ্ধতিতে সমাধান করার চেষ্টা করা হবে।

শেষ ও চূড়ান্ত পর্যায়ে জটিলতা নিরসনে ‘পরিচালনা কমিটি’ বরাবর সমস্যাটি উত্তোলনপূর্বক সমাধান নিতে বাধ্য থাকবে।

‘পরিচালনা কমিটি’ প্রতি মাস অন্তর অন্তর মিটিং আহবান করবে এবং যথাযথ সময়ে চিঠির মাধ্যমে মিটিং আহবানের ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। এবং সাধারণভাবে তিন মাস অন্তর অন্তর ‘উপদেষ্টা কমিটি’র মিটিং আহবান করা হবে।

সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ও সহকারীরা কমিটির কর্মসূচিসমূহ বাস্তবায়নে সর্বদা সচেতন থাকবে এবং সময়সাপেক্ষ ‘তথ্য ও পর্যবেক্ষণ কমিটি’ এলাকাবাসীকে সচেতন করার লক্ষ্যে সচেতনতামূলক প্রদর্শনী কর্মসূচির আয়োজন করবে।

উপস্থিত সকল সদস্যের সর্ব সসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে ‘সমাজ উন্নয়ন কমিটি (সউক)’র উল্লিখিত সকল উদ্দেশ্য ও কর্মসূচি বাস্তবায়নে মহেশখালী থানার প্রশাসনিক সহযোগিতা ও অনুমতি অর্জনের পূর্ণ চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।

উপরোক্ত সকল সিদ্ধান্ত বৈঠকে উপস্থিত সকল সদস্যের সর্ব সম্মতিক্রমে গৃহীত হয়। এবং উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন বৈঠকের সভাপতি।

Related News
- Advertisment -

Popular News

error: Content is protected !!