Saturday, May 18, 2024
HomeNewsবদলে যাচ্ছে বড় মহেশখালী;গণমানুষের প্রশংসায় পঞ্চমুখ এনায়েত উল্লাহ বাবুল

বদলে যাচ্ছে বড় মহেশখালী;গণমানুষের প্রশংসায় পঞ্চমুখ এনায়েত উল্লাহ বাবুল

ইশরাত মুহাম্মদ শাহ জাহানঃ

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুলের একান্ত প্রচেষ্টা ও স্বদিচ্ছায়। বদলে যাচ্ছে বড় মহেশখালী। সেই সাথে গণমানুষের প্রশংসায় পঞ্চমুখ এনায়েত উল্লাহ বাবুল

দ্বীপ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বাণিজ্যিক প্রাণকেন্দ্র বড় মহেশখালী নতুন বাজারের সব অলিগলির রাস্তা আর সি সি ঢালাই দ্বারা উন্নয়ন, নতুন বাজারের মাছের আড়তে টিন সেট স্হাপন, সাধারণ জণগণ সহ ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে বাজারে গভীর নলকুপ স্হাপন, বর্ষা মৌসুমে পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেন নির্মাণ সহ নিয়মিত নালা-নর্দমা পরিষ্কার অব্যাহত রয়েছে।

প্রাপ্ত তথ্য মতে, বড় মহেশখালী নতুন বাজারের অলি গলি আর সি সি ঢালাইয়ের জন্য বাজার কমিটি কিংবা বাজার উন্নয়ন তহবিল নেই। বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুলের একান্ত প্রচেষ্টা ও স্বদিচ্ছায় বাজারের অলি গলির অভূতপূর্ব উন্নয়ন হচ্ছে, এবং এ উন্নয়ন চলমান অব্যাহত থাকবে।

ইতিমধ্যে জনগণের মৌলিক অধিকার শতভাগ নিশ্চায়ন ও স্হানীয় সরকার বিভাগ কর্তৃক ইউনিয়ন পরিষদের নাগরিক সেবায় মহেশখালী উপজেলার অন্যান্য ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ে নাগরিক সেবায় একধাপ এগিয়ে রয়েছে বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদ।

বড় মহেশখালী ইউনিয়নে জনপ্রিয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুল’র আন্তরিক প্রচেষ্টায় বৈশ্বিক মহামারী করোনার পরিস্থিতিতে (Lockdown) লকডাউনেও থেমে নেই নাগরিক সেবা।

বিভিন্ন সময় ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে দেখা যায়- জন্ম নিবন্ধন সনদ ‘র স্তূপ। জন্ম নিবন্ধন সনদে স্বাক্ষর করা সহ বিভিন্ন প্রত্যয়ন পত্র, পাসপোর্ট ভেরিফাই (passport verify) এবং অন্যান্য আনুষাঙ্গিক কাজে ব্যস্ততম সময় পার করছেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সহ সংশ্লিষ্ট সকলেই।

সমাজিক দুরত্ব বজায় ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুল, ইউপি সদস্য সহ ইউনিয়ন পরিষদের সচিব, গ্রাম আদালত সহকারী, তথ্য সেবা কেন্দ্রের পরিচালক ও গ্রাম পুলিশ সহ সংশ্লিষ্টরা।

বিনামূল্য ও কোনো প্রকার হয়রানি ছাড়া নাগরিক সেবা প্রদানে সাধারণ জণগণের প্রশংসায় ভাসছেন বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুল সহ ইউনিয়ন পরিষদের সংশ্লিষ্টরা। তড়িৎ গতিতে নাগরিক সেবা পেয়ে স্থানীয় জন সাধারণ মনে করেন, নাগরিক সেবায় একধাপ এগিয়ে গেছে তাদের ইউনিয়ন পরিষদ (union parishad)।

প্রাপ্ত তথ্য মতে, বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুল মহেশখালীর ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান। তাঁর মরহুম পিতা সিরাজুল হকও বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দীর্ঘদিন সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন।

বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুল বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বড় মহেশখালী ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনসাধারণের প্রত্যক্ষ ভোটে নিবার্চিত হয়ে অদ্যবদি সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালত থেকে শুরু করে জন্ম নিবন্ধন সনদ (Birth Registration Certificate) প্রদান সহ বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, পঙ্গু ভাতা, করোনা পরিস্থিতিতে সরকার কর্তৃক ত্রাণ বিতরণ সহ জনগণের মৌলিক অধিকার শতভাগ নিশ্চায়ন করে সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ নিতে আসা ইউনিয়নের মাঝের ডেইল গ্রামের বাসিন্দা আবু নাঈম বলেন, ” বিগত সময়ে জন্ম নিবন্ধন সনদ কার্যক্রম সহ বিভিন্ন কাজে ইউনিয়ন পরিষদে আসলে দিনের পর ঘুরাঘুরি করেও কাজ করেতে পারতাম না। কিন্তু বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুল’র আমলে এসে সম্পুর্ণ বিপরীত চিত্র। কোনো রকম টাকার লেনদেন ও হয়রানি ছাড়া মিলে নাগরিক সেবা।”

বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালত সহকারী এনামুল হক বলেন, ” চেয়ারম্যান মহোদয়ের আন্তরিক প্রচেষ্টায় আমরা যতটুকু সম্ভব মহেশখালী উপজেলার অন্যান্য ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ে জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম সহ জনগণের যে মৌলিক অধিকার আছে, তা শতভাগ নিশ্চায়নে কাজ করে যাচ্ছি। বিনামূল্যে সরকার কর্তৃক সকল নাগরিক সেবা আমরা হয়রানি ও দুর্নীতিমুক্ত রেখে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। ভবিষ্যতেও আমাদের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। ”

সেই সাথে বৈশ্বিক মহামারী করোনার পরিস্থিতিতে বড় মহেশখালী ইউনিয়নের অসহায় হতদরিদ্র ছিন্নমূল পরিবার, দিনমজুর, রিক্সা চালক, ধোপা, নাপিত, বাবুর্চি, শ্রমিক সহ ইমাম মুয়াজ্জিন, নন এমপিও, কওমী মাদ্রাসা, নুরানী, হেফজখানাসহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের সরকারি ও ব্যাক্তিগত ফাউন্ডেশন থেকে যে হারে অনুদান, ত্রাণ, আর্থিক সাহায্য সহযোগিতা দিয়ে অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন তা অবশ্যই প্রশংসার দাবিদার মনে করেন সচেতনত মহল।

বড় মহেশখালী ইউনিয়নের ০৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আব্দুল আজিজি বলেন, আমার জানামতে এমন কোন ব্যক্তি নেই, যিনি চেয়ারম্যান মহোদয়ের নিকট সহায্য চেয়ে নিরাশ হয়েছেন। এতো উদার মনের মানুষ। একটু চিন্তা করলেই বুঝা যায়- আমাদের চোখের সামনে বর্তমানে অনেক চেয়ারম্যান দেখা যায় যারা প্রতিনিয়ত গরিব দুঃখী অসহায় মানুষের ত্রাণ চুরি করতে ব্যাস্ত।

প্রতিদিন সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ইউটিউব, প্রিন্ট-ইলেকট্রনিক মিডিয়া সহ সবখানে দেখা যাচ্ছে- কেউ ব্যস্ত চালে, আবার কেউ ব্যস্ত তেলে।

কিন্তু আমাদের চেয়ারম্যান মহোদয় ব্যস্ত বড় মহেশখালীর অসহায় দরিদ্র পরিবার- যাদের একবেলা একমুঠো খাবার যোগানোর মতো সমর্থ নেই তাদের নিয়ে।

বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুল বলেন, ” আমি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে জনগণের সেবক হিসেবে স্হানীয় সরকার কর্তৃক যে সকল নাগরিক সেবা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রদানের বিধান রয়েছে, তা শতভাগ সততা ও নিষ্ঠার সাথে দিয়ে যাচ্ছি। জন্ম নিবন্ধন সনদ কার্যক্রম থেকে শুরু করে বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, সহ ত্রাণ বিতরণও অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষভাবে বিতরণ করা হয়েছে। গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন থেকে শুরু করে মসজিদ, মাদ্রাসা, কবরস্থানের গাইড ওয়াল নির্মাণ, জনসমাগম ও দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় সোলার স্হাপন সহ বড় মহেশখালী ইউনিয়নের সব জায়গায় উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। আশা করি ভবিষ্যতেও এ চলমান উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।”

সর্বশেষ মহেশখালী উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বাণিজ্যিক প্রাণকেন্দ্র বড় মহেশখালী নতুন বাজারের অলি গলি আর সি সি ঢালাই দ্বারা উন্নয়ন, মাছ বাজারের টিন সেট স্হাপন, বাজারে গভীর নলকূপ সহ বর্ষার মৌসুমে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা সহ আনুষাঙ্গিক কাজ করা হয়েছে।

সর্বোপরি- বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুল’র এমন উন্নয়ন ও নাগরিক সেবা প্রদান সুনাম কুড়িয়েছে বড় মহেশখালী সহ পুরো মহেশখালী উপজেলায়। এখন সাধারণ গণমানুষের প্রশংসায় পঞ্চমুখ বড় মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ বাবুল।

Related News
- Advertisment -

Popular News

error: Content is protected !!