Tuesday, April 23, 2024
HomeNewsপাউবোর দায়সারা সংস্কারঃ বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে জোয়ারের পানিতে প্লাবিত উপকূলীয় অঞ্চল

পাউবোর দায়সারা সংস্কারঃ বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে জোয়ারের পানিতে প্লাবিত উপকূলীয় অঞ্চল

মোহাম্মদ কাইমুল ইসলাম ছোটনঃ

পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবোর) দায়সারা সংস্কারে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে জোয়ারের পানিতে মাতারবাড়ি প্লাবিত হয়েছে উপকূলীয় অঞ্চল।

পূর্ণিমার জোয়ারের কারণে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে জোয়ারের পানি লোকালয়ে প্রবেশ করেছে। এতে প্লাবিত হয়েছে প্রায় অর্ধশতাধিক গ্রাম।

অতি বৃষ্টি ও জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ৩-৪ ফুট বৃদ্ধি পাওয়ায় বেড়িবাঁধ এলাকায় পানি প্রবেশ করেছে। এতে দূর্ভোগে পড়ছে ২০ হাজারো মানুষ। অনেকে বাঁধ রক্ষার জন্য বালির বস্তা দিচ্ছেন।

এদিকে সাগরের টেউয়ের আঘাতে হিমছড়িতে ধসে পড়েছে কক্সবাজার জেলা পরিষদের রেস্ট হাউস ‘মাধবি’।

মাধবি জনশূন্য থাকায় কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

২৪ জুলাই (শনিবার) সরেজমিনে দেখা যায়, অস্বাভাবিকভাবে জোয়ারের পানি বেড়ে যাওয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর মাতারবাড়ী-ধলঘাটা, কুতুবদিয়ার আলী আকবর ডেইল, চকরিয়ার কোনাখালী এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে অনেকের বাড়িঘর।

এতে মানুষ তাদের ঘরবাড়ির গুরুত্বপূর্ণ জিনিসপত্র অন্যত্র সরিয়ে ফেলছে। দায় সারার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের দেওয়া জিওব্যাগ অনেক জায়গায় সাগরের পানিতে তলিয়ে যেতে দেখা গেছে।

কক্সবাজার আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, বায়ুচাপের তারতম্যের কারণে সমুদ্রে পানির উচ্চতা বেড়ে যায়। পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ২-৩ ফুট বৃদ্ধি পাবে। উত্তর-দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে মেঘ মালায় তৈরি হচ্ছে। যার কারণে বৃষ্টি হচ্ছে। আরও ৫-৭ দিন বৃষ্টি থাকবে বলে জানিয়েছেন সহকারি আবহাওয়াবিদ মোহাম্মদ আবদুর রহমান।

যেকোনো মুহূর্তে বাঁধ ভেঙে ঘর-বাড়ি, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান, রাস্তা, মৎস্য ঘের, ফসলি জমিসহ বিভিন্ন স্থাপনা পানিতে ডুবে যেতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করছেন স্থানীয়রা।

কুতুবদিয়ার বায়ু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নাসিমা বেগম বলেন, পুরো এলাকা জোয়ারের পানিতে ডুবে গেছে। রান্না করতে পারতেছিনা। চরম দূর্ভোগে আছি আমরা।

ধলঘাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হাসান বলেন, বেড়িবাঁধ ভেঙে পানি ডুকে পড়ছে লোকালয়ে। এখনো ধলঘাটা অরক্ষিত, মানুষ আতঙ্কে আছেন।

মাতারবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জি.এম ছমি উদ্দীন বলেন, মাতারবাড়ী সমুদ্রের তীরবর্তী এলাকা থেকে মগনামা সাবমেরিন ক্যাবল প্রকল্পে জমি ভরাট করার জন্য বালি নিয়ে যাচ্ছে। ফলে সাগরের টেউ সরাসরি বেড়িবাঁধে পড়ে বেড়িবাঁধ আরো ভেঙে যাচ্ছে এবং কর্তৃপক্ষ বেড়িবাঁধ দ্রুত সংস্কারের উদ্যোগ না নেওয়ায় লোকালয়ে পানি প্রবেশ করছে। তিনি টেকসই বেড়িবাঁধের জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

Related News
- Advertisment -

Popular News

error: Content is protected !!