Monday, May 20, 2024
HomeNewsচট্টগ্রাম শহরে সন্ধ্যার পর ফার্মেসি-কাঁচা বাজার ছাড়া সব দোকান বন্ধ

চট্টগ্রাম শহরে সন্ধ্যার পর ফার্মেসি-কাঁচা বাজার ছাড়া সব দোকান বন্ধ

করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় চট্টগ্রামে সন্ধ্যা ৬টার পর ওষুধের দোকান (ফার্মেসি) ও কাঁচাবাজার ছাড়া সব দোকানপাট বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ মমিনুর রহমান। আজ ০২ এপ্রিল (শুক্রবার) বিকেলে এ খবর এর  নির্দেশনা দেন তিনি।

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়া আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে চট্টগ্রামের সব শপিং সেন্টার, বিপণি কেন্দ্র, হোটেল-রেস্টুরেন্ট বন্ধ রাখতে হবে। তবে ওষুধের দোকান ও কাঁচাবাজার খোলা থাকবে।

এ নির্দেশনা অমান্য করলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শাস্তি দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রাম এর মধ্যে করোনা ভাইরাসে ৫১৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন একজন।

জেলা সিভিল সার্জনের কার্যালয়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ৯টি ল্যাবে ২ হাজার ৫৩৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে আক্রান্ত হিসেবে ৫১৮ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৪৩৬ জনই নগরীর বাসিন্দা। ৮২ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। উপজেলার মধ্যে হাটহাজারীতে সর্বোচ্চ ২৯ জনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এরপর রাঙ্গুনিয়ায় ১০ জন আক্রান্ত পাওয়া গেছে। বাকি উপজেলার প্রতিটিতে সংক্রমণ এর চেয়ে কম।

চট্টগ্রাম এর মধ্যে এ নিয়ে ৪০ হাজার ৮০১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে বলে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। এর মধ্যে নগরীতে ৩২ হাজার ৪৯৮ জন এবং উপজেলায় ৮ হাজার ৩০৩ জন।

এছাড়া মহামারি করোনা ভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরও ৫০ জন বলে খবর পাওয়া যায়। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯ হাজার ১৫৫ জনে। এছাড়া দেশের ইতিহাসে গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৬ হাজার ৮৩০ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন এ নিয়ে দেশে এখন পর্যন্ত মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬ লাখ ২৪ হাজার ৫৯৪ জনে। নিত্য নতুন মানুষের মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তেছে চট্রগ্রাম, ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন জেলায়।

মৃত্যুর মিছিল যেন থামছেইনা এখন।

করোনা ভাইরাস নিয়ে ০২ এপ্রিল (শুক্রবার) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এদিন সুস্থ হয়েছেন আরও ২ হাজার ৪৭৩ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৪৭ হাজার ৪১১ জন।

Related News
- Advertisment -

Popular News

error: Content is protected !!