Saturday, May 18, 2024
HomeNewsসবাইকে কাঁদিয়ে চিরনিদ্রায় শায়িত মুফতি রিদুওয়ানুল হক

সবাইকে কাঁদিয়ে চিরনিদ্রায় শায়িত মুফতি রিদুওয়ানুল হক

সবাইকে কাঁদিয়ে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর কালারমার ছড়া ঝাপুয়ার ঐতিহ্যবাহী ও প্রাচীনতম দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আল জামেয়াতুল আশরাফিয়া ঝাপুয়া ও আশরাফিয়া এতিমখানার প্রধান পরিচালক আল্লামা মুফতি রিদুওয়ানুল হক (রহ.)।

০২ এপ্রিল (জুমাবার) সকাল ১০ টায় ঝাপুয়া মাদ্রাসার ময়দানে মরহুমের ছোট সন্তান মাওলানা সাঈদুল গফফার এর ইমামতিতে হাজারও ছাত্র, ভক্ত ও মুসল্লিদের অংশগ্রহণে লাশ দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

মুফতি রিদুওয়ানুল হক বিগত ২ বছর যাবৎ লিভার সিরোসিস রোগে আক্রান্ত হয়ে দেশে ও দেশের বাহিরে চিকিৎসা নিয়েছিলেন। কিন্ত বিগত ৩ দিন পূর্বে হঠাৎ শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তার পরিবার চট্টগ্রামস্থ ন্যাশনাল হাসপাতালে ভর্তি করান, গতকাল ০১ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) দুপুর ২টায় আল্লাহর সান্নিধ্যে চলে যান।

কক্সবাজার দ্বীপ

মৃত্যকালে মুফতি রিদুওয়ানুল হকের বয়স ছিলো ৬১ বছর। ৪ ছেলে ও ৩ মেয়ে সন্তানসহ হাজার হাজার ছাত্র, ভক্ত ও অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে যান তিনি।

মুফতি রিদুওয়ানুল হক আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়া থেকে দাওরায়ে হাদীস সমাপ্ত করেন ১৯৮২ সালে। তিনি দীর্ঘ ৩৯ বছর পর্যন্ত শিক্ষকতা পেশায় চট্টগ্রামের আনোয়ারা জামিয়া হাইলধর,কক্সবাজারের দ্বীপ মহেশখালী পৌরসভাস্থ জামিয়া আরবিয়া গোরকঘাটা, চট্টগ্রাম জামিয়া জিরিতে মুহাদ্দিস হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

পরে দীর্ঘ ১২ বছর পর্যন্ত মহেশখালীর আল জামেয়াতুল আশরাফিয়া ঝাপুয়ায় প্রধান পরিচালক পদে সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি দীর্ঘ সময় ধরে অত্যন্ত দক্ষতার সহিত অত্র জামিয়ায় শিক্ষা পরিচালকের দায়িত্বও পালন করেছিলেন।

তার মৃত্যুতে শুধু মহেশখালীতে নয়; পুরো কক্সবাজার জেলায় নেমে আসে শোকের ছায়া।

জানাযার পূর্বে মরহুমের জীবনের উপর সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন, আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পটিয়ার প্রধান পরিচালক আল্লামা আবদুল হালিম বোখারী। তিনি বলেন- মহেশখালীবাসী একজন ইলমের বাতিঘরকে হারিয়েছেন যার জীবনের অধিকতর সময় কাটিয়েছেন মাদ্রাসার খেদমতে, আমরা সবাই দোয়ে করি রব্বে কারিম যেন মরহুমের ভুল ত্রুটি ক্ষমা করে জান্নাতুল ফেরদৌস নসিব করেন।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, চট্টগ্রাম জামিয়া দারুল মা’আরিফ র নির্বাহী পরিচালক আল্লামা ফুরকানুল্লাহ খলিল, ঝাপুয়া আল ইমান আদর্শ মহিলা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ড. রশিদ জাহেদ, মাওলানা ফয়জুল্লাহ, মাওলানা এনায়ত উল্লাহ স্বাকি, মরহুমের বড় ছেলে মাওঃ এহছান,কক্সবাজারের দ্বীপ মহেশখালী উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান জহির উদ্দীন,চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ, আবু তাহের চৌধুরী।

মহেশখালীর বিভিন্ন সরকারী বেসরকারি মাদ্রাসা ও স্কুল, কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী সহ সর্বস্তরের মুসলিম তৌহিদি জনাতা লাশের জানাজায় অংশগ্রহন করেন।

Related News
- Advertisment -

Popular News

error: Content is protected !!